একচিন্তাশীলতা মানব অনুভূতির খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান। এমনকি মানুষের সাথে পশুপাখি ও গাছপালার পার্থক্যকারী একমাত্র উপাদান এই চিন্তাশীলতা। আর চিন্তা করতে পারে বলেই মানুষের কাজের ক্ষেত্রে আসে ন্যায় বা অন্যায়ের কথা, আসে সত্য বা মিথ্যার কথা, আসে ভাল বা খারাপের কথা। কেননা পশুপাখির ক্ষেত্রে সব কাজই ‘as usual’। কিন্তু মানুষের ক্ষেত্রে তা নয়। মানুষ চিন্তা ছাড়া কোন কাজই করে না। মানুষের চিন্তাশীলতা একটি স্বয়ংক্রিয় প্রক্রিয়া।

আমরা প্রায়ই গুণিজনদের কাছ থেকে শুনে থাকি, আমরা চিন্তাহীন জাতিতে পরিণত হয়েছি, সমাজের রন্ধ্রে রন্ধ্রে চিন্তা শূন্যতা ইত্যাদি ইত্যাদি। আসলেই কি তাই? আমরা কিন্তু প্রতিনিয়ত কিছু না কিছু নিয়ে চিন্তা করছি। কারও ব্যবসা বাড়ানোর চিন্তা, কারও নতুন চাকরির চিন্তা, কারও চাকরি পরিবর্তনের চিন্তা, কারও পরীক্ষা পাশের চিন্তা, কারও ‘হালফ্যাশন’ এর চিন্তা, কারও ফেইসবুক লাইক এর চিন্তা, কারও বা রাজনীতির চিন্তা।

IIRT Arabic Intensive

তবে এর কোনটাই মৌলিক চিন্তা না। একটা উদাহরণ দেই-উপরের প্রতিটি চিন্তার সামনে একটি করে ‘কেন’ জুড়ে দিলেই আরও চিন্তা বেরিয়ে আসবে। যেমন –কেন ব্যবসা বাড়ানোর চিন্তা ? উত্তর: ইনকাম বাড়াতে হবে। কেন ইনকাম বাড়াতে হবে? উত্তর: খরচের ভার পোষানো যাচ্ছে না। কেন খরচের ভার পোষানো যাচ্ছে না? উত্তর: সবকিছুর মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। কেন মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে? উত্তর: জানি না  ।

এর বেশি আমরা আসলে নিতে পারি না। কেউ হয়তো বলে বসবেন, ভাই সমাজ তো এভাবেই চলছে, এত চিন্তার সময় কই? তাই সরাসরি উপরের চিন্তাটির মূলে গেলে যা পাই তা হলো – এই লাইফে শুধুমাত্র চেষ্টা বা কষ্ট করলেই ইনকাম বা ফলাফল পাওয়া যায়। এই মৌলিক চিন্তাটি একটি কনসেপ্ট দ্বারা প্রভাবিত যা হলো- ইহকাল ও পরকাল দুইটি ভিন্ন বিষয়। আরও ভেঙে বললে, ইহকাল আমার জন্য এবং পরকাল খোদার জন্য। এই কনসেপ্টটাই এই শতকের সর্বাপেক্ষা প্রচারিত ও প্রসারিত কনসেপ্ট। বর্তমান পৃথিবীর উন্নত, অনুন্নত, স্বল্পোন্নত সকল রাষ্ট্রের  জীবন ও শাসন এই কনসেপ্ট এর উপর ভিত্তি করেই চলছে।

দুইএবার ঠিক তার উল্টো কিছু চিন্তার কথা বলি।

আল্লাহ বলেন –

إِنَّ رَبَّكَ يَبْسُطُ الرِّزْقَ لِمَن يَشَاءُ وَيَقْدِرُ ۚ إِنَّهُ كَانَ بِعِبَادِهِ خَبِيرًا بَصِيرًا

নিশ্চয়  তোমার পালন কর্তা যাকে ইচ্ছা অধিক জীবনোপকরণ দান করেন এবং তিনিই তা সংকুচিত করে দেন। তিনিই তাঁর বান্দাদের সম্পর্কে ভালোভাবে অবহিত; তিনি সবকিছু দেখছেন। [সূরাহ বনি ইসরায়েল : ৩০]

وَأَحَلَّ اللَّهُ الْبَيْعَ وَحَرَّمَ الرِّبَا

আল্লাহ তা’আলা ক্রয়-বিক্রয় বৈধ করেছেন এবং সুদ হারাম করেছেন। [সূরাহ আল বাক্কারাহ: ২৭৫]

إِنَّ الدِّينَ عِندَ اللَّهِ الْإِسْلَامُ

নিঃসন্দেহে আল্লাহর নিকট গ্রহণযোগ্য দ্বীন (জীবনব্যবস্থা) একমাত্র ইসলাম। [সূরাহ আল ইমরান : ১৯]

এগুলোও এক একটি চিন্তা যেখানে বলা হচ্ছে ‘রিজিক আল্লাহই দান করেন’, ‘ব্যবসা হালাল কিন্তু সুদ নয়’, ‘ইসলাম একটি পরিপূর্ণ জীবনব্যবস্থা’ ইত্যাদি। এই চিন্তাগুলোর মূল কনসেপ্ট হচ্ছে ‘আমার ইহকাল ও পরকাল দুটোই আল্লাহর নির্ধারিত বিধানের অধীন’। এই কনসেপ্টটা কিন্তু আগের কনসেপ্ট ( ইহকাল আমার জন্য এবং পরকাল খোদার জন্য )  এর সাথে সাংঘর্ষিক।

তিনতাই চিন্তা নয়, বরং কনসেপ্টটি মূল। কনসেপ্টই চিন্তাকে নিয়ন্ত্রণ করে। কনসেপ্ট যা হবে চিন্তাও সেই আদলে ঘুরপাক খাবে। আসুন আমরা যেন সঠিক বিষয়ে চিন্তা করতে পারি সেজন্য  আল্লাহর কাছে দু’আ করি-

يَا مُقَلِّبَالْ قُلُوبِ ثَبِّتْقَلْبِى عَلَى دِينِكَ‬‎

হে অন্তর সমূহের পরিবর্তনকারী ! আপনার দ্বীনের উপর আমার অন্তরকে অবিচল রাখুন। [তিরমিযি : ৩৪৪৪]


লেখক: সোহান ইয়াসির ইকবাল

মুসলিম মিডিয়া ব্লগের কার্যক্রম অব্যাহত রাখা সহ তা সামনের দিকে এগিয়ে নিতে আপনার সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন। ব্লগ পরিচালনায় প্রতি মাসের খরচ বহনে আপনার সাহায্য আমাদের একান্ত কাম্য। বিস্তারিত জানতে এখানে ভিজিট করুন।

নিচে মন্তব্যের ঘরে আপনাদের মতামত জানান। ভালো লাগবে আপনাদের অভিপ্রায়গুলো জানতে পারলে। আর লেখা সম্পর্কিত কোন জিজ্ঞাসার উত্তর পেতে অবশ্যই "ওয়ার্ডপ্রেস থেকে কমেন্ট করুন"।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.

IIRT Arabic Intensive