— শিবলু, বাংলাদেশ ব্যাংকের AD তে এপ্লাই করো নাই?

– না। আসলে আমি যে খুব ভালো কাজ করি তা না, কিন্তু সুদ খেয়ে জাহান্নামে যেতে পারবো না।

মুসলিম মিডিয়া ব্লগের কার্যক্রম অব্যাহত রাখা সহ তা সামনের দিকে এগিয়ে নিতে আপনার সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন। ব্লগ পরিচালনায় প্রতি মাসের খরচ বহনে আপনার সাহায্য আমাদের একান্ত কাম্য। বিস্তারিত জানতে এখানে ভিজিট করুন।

— তুমি কি বলতে চাও, বাংলাদেশ ব্যাংকের চাকরিও হারাম?

– আমার ব্যাংক নিয়ে যতটুকু নলেজ আছে, সুদ নিয়ে যা জানি তাতে আমি কিছুতেই বাংলাদেশ ব্যাংকে জব করা কেন হালাল হবে তা বের করতে পারিনি। জানেন তো ‘কেন্দ্রীয় ব্যাংক হচ্ছে ঋণ দানের শেষ আশ্রয়স্থল’! মানে সুদী সিস্টেমকে টিকিয়ে রাখার শেষ আশ্রয়স্থল। যেসব উলামা’ বাংলাদেশ ব্যাংকে চাকরি করা হালাল বলেছেন, তাঁদের মতামতের স্ট্রং কোনো ইভিডেন্স আমি দেখিনি। আপনি দেখে থাকলে আমাকে জানাতে পারেন। কে না চায় দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকে জব করতে! শাইখ সালিহ আল মুনাজ্জিদকে প্রশ্ন করা হয়েছিলো, “আমি একটি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করি যেটা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বিল্ডিং মেইনটেইন্যান্সের কাজে জড়িত, আমার চাকরি কি হালাল হবে?” উনি যা বললেন তার সারমর্ম হলো, “কেন্দ্রীয় ব্যাংকে অথবা একে কেন্দ্রীয় ব্যাংককে ইকুইপমেন্ট সাপ্লাই দেয় এমন কোনো প্রতিষ্ঠানে চাকরি করা হালাল নয়। কারণ এটা পাপ ও সীমালঙ্ঘনে সহযোগিতা করা।”[১]

— আচ্ছা, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের চাকরি তো সরকারি চাকরি!

– সরকারি চাকরি হলেই সব হালাল হয়ে যায় এমন উসূল আমার জানা নেই। মূল বিষয় আপনি কী কাজ করে সরকার থেকে টাকাটা নিচ্ছেন। আপনি যদি পাপ কাজে সহযোগিতা করে সরকার থেকে টাকা নেন, তা হারাম হবে আর সরকারি মাদ্রাসায় কুর’আন শিক্ষা দিয়ে সরকার থেকে টাকা নেন তা হালাল হবে।

— দেখো, তুমি তো জানো, মৃত পশুর গোস্তও হালাল হয়ে যায়!

– এখানে শর্ত হলো যদি কারো অন্য কোনো অপশন না থাকে, তার জীবন বা শরীরের অঙ্গহানি হওয়ার আশংকা থাকে তাহলে মৃত পশু খেতে পারে, ততটুকু যতটুকু খেলে বিপদ কেটে যাবে! বাংলাদেশ ব্যাংকের চাকরি না করলে জীবন বিপদসংকুল হওয়ার কোনো সম্ভাবনা আমার আপাতত নেই!

— দেখো, পুরো অর্থনীতি তো সুদের উপর দাঁড়িয়ে আছে, কোথায় তুমি চাকরি করবে যেখানে সুদ নেই!

– এই কথা কেন্দ্রীয় ব্যাংকে চাকরিকে জাস্টিফাই করে না যেটা সরাসরি সুদের সাথে জড়িত। সুদের সাথে জড়িত মানে, যে সুদ দেয়, যে নেয়, যে সাক্ষী থাকে আর যে হিসাব রাখে। আর কেন্দ্রীয় ব্যাংকের যারা এই চার কাজে নেই, তারা পড়বে সুরা মায়েদার ওই আয়াতের আন্ডারে যেখানে বলা আছে, “পাপ ও সীমালঙ্ঘনের ব্যাপারে একে অন্যের সহায়তা করো না। আল্লাহকে ভয় কর।”[২] আর অন্য প্রতিষ্ঠান হলো ভিন্ন। এক হলো আপনার মূল কাজটাই হারাম, আরেকটা হলো মূল কাজটা হালাল। যেটার মূল কাজ হালাল আর কিছু হারাম ইলিমেন্ট আছে সেখানে ইনকামের হারাম অংশটা বাদ দিয়ে দিবেন।

— দেখো, চাকরির বাজারের যে অবস্থা, এভাবে চাকরির অপশনগুলো বাদ দিলে চাকরি করবো কোথায়!

– আল্লাহ’র ওপর ভরসা রাখুন। জানেন তো আল্লাহ্‌ বলেছেন, “আর যে আল্লাহকে ভয় করে, আল্লাহ তার জন্যে নিষ্কৃতির পথ করে দেবেন। এবং তাকে তার ধারণাতীত জায়গা থেকে রিযিক দেবেন। যে ব্যক্তি আল্লাহর উপর ভরসা করে তার জন্যে তিনিই যথেষ্ট। আল্লাহ তার কাজ পূর্ণ করবেন।”[৩]

তথ্যাবলী

[১] IslamQA
[২] আল কুর’আন ৫:২
[৩] আল কুর’আন ৬৫:২-৩

শুরু হোক আপনার অ্যারাবিক শেখার যাত্রা।  ফেব্রুয়ারি ২০১৭ এ শুরু হতে যাচ্ছে দুই বছর মেয়াদি অনলাইন ভিত্তিক আরবি ভাষা শিক্ষা কোর্স IIRT Arabic Intensive প্রোগ্রামের নতুন ব্যাচ, যেখানে অ্যাপনি বিশ্বের যেকোন প্রান্ত থেকে ক্লাসে অংশগ্রহণ করতে পারবেন, ইনশা আল্লাহ। বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন: www.arabic.iirt.info

নিচে মন্তব্যের ঘরে আপনাদের মতামত জানান। ভালো লাগবে আপনাদের অভিপ্রায়গুলো জানতে পারলে। আর লেখা সম্পর্কিত কোন জিজ্ঞাসার উত্তর পেতে অবশ্যই "ওয়ার্ডপ্রেস থেকে কমেন্ট করুন"।

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published.